Home পেইড টিউটোরিয়াল কম্পিউটার ছাড়াই ফ্রী বিটকয়েন মাইনিং এর গোপন ট্রিক্স পাচ্ছেন মাত্র ১৫...

কম্পিউটার ছাড়াই ফ্রী বিটকয়েন মাইনিং এর গোপন ট্রিক্স পাচ্ছেন মাত্র ১৫ হাজার টাকায়।

332
SHARE
E-money exchangers list

আমরা বাংলাদেশীরা সর্বদা চিন্তা করি এবং চেষ্টা করেই চলি যে কিভাবে ঘরে বসে শুয়ে ঘুমিয়ে অনলাইন থেকে বা ইন্টারনেট থেকে ইনকাম করা যায়। তাই  তো অনলাইনে PTC সাইটগুলো অনেক জনপ্রিয়। অনেকে PTC সাইটে ইনভেষ্ট করেও আয় করতে চায় এমন কি করতেছেন। অন্য দিকে আবার কিছু মানুষ আছেন যারা মনে করেন PTC সাইট দিয়ে কিছু হবে না তাই তারা অন্য দিকে ইনভেষ্ট করে আজ করে চলেছেন। বর্তমান সময়ে তেমনি শুয়ে বসে ইনকাম করার উপায় হলো বিটকয়েন মাইনিং। এই বিটকয়েন মাইনিং এতটাই সহজ যে, যে কেউ এই কাজ করে ইনকাম করতে পারবেন। বিটকয়েন মাইনিং করতে শুধু মাত্র একটি কম্পিউটার আর কিছু জিবি গ্রাফিক্স কার্ড লাগালেই শুহু হয়ে গেলো আপনার কাংক্ষিত শুয়ে বসে ইনকাম।

কিন্তু এটা যত সহজে বললাম এতটা সহজ নয়। কেননা এটা করতে বা বিটকয়েন মাইনার সেটাপ করতে লাগে একটা মোটা অঙ্কের টাকা যা প্রায় ৭০ হাজার টাকার উপরে। আপনি এই ইনভেষ্টমেন্টে রাজি হয়ে ইনভেষ্ট করলে বা বিটকয়েন মাইনিং রিগ সেটাপ করলে আপনার ইনভেষ্টমেন্ট ফেরত পেতে প্রায় এক বছর সময় লাগবে। আপনি যদি বর্তমান (মার্চ ২০১৮) সময়ে বিটকয়েন মাইনিং খুবি জনপ্রিয় এবং সবাই সেটা করতে চায়। যত বেশি গ্রাফিক্স কার্ড ততো বেশি টাকা ইনকাম। কিন্তু গ্রাফিক্স কার্ড খুব যে কম দাম তা কিন্তু নয়। মোটামুটি ৪ জিবি গ্রাফিক্স কার্ড -এর দাম প্রায় ১৬,৫০০/- টাকা আবার যদি সেই গ্রাফিক্স কার্ড DDR5 সিরিজের হয় তবে তার দাম প্রায় ১৯,০০০/- টাকা এর থেকে বেশিও হতে পারে।

এখন প্রশ্ন হলো, এই ৪ জিবি গ্রাফিক্স কার্ড দিয়ে দিনে কতো টাকা আয় করতে পারবেন? খুব বেশি হলে দুই ডলার। এখন সজা হিসেব করে দেখুন ইনভেষ্টমেন্ট কবে ফেরত আসবে বা কতো সময় লাগবে। এটা বলা হলে যারা নতুন বিটকয়েন রিগ সেটাপ করতে যাচ্ছেন তাদের জন্য।

অন্য দিকে আপনি যদি অনলাইন এডুকেশন এইড বাংলা (OEAB) -এর ফুল ভেরিফাইড ইন্ট্রোপেয় একাউন্ট বা নেটেলার একাইন্ট ক্রয় করেছিলেন। তারা প্রয়জনে অপ্রয়োজনে অনেক মাষ্টার কার্ড বা ভিসা কার্ড তৈরী করে থাকেন বা পারেন। আর কার্ড গুলো দিয়ে আপনি খুব সহজে সম্পুর্ণ ফ্রী তে আনলিমিটেড ভিপিএস সার্ভার ক্রয় করতে পারবেন।  আর আপনি এই ফ্রী ভিপিএস গুলো দিয়ে বিটকয়েন মাইনিং করতে পারবেন অন্যাসে যা আমরা নিচের যেওয়া ভিডিও তে বিস্তারিতো ভাবে আলোচনা করেছি। আশা করি বুঝতে সমস্যা হবে না।

বিটকয়েন মাইনিং এর এই ট্রিক্স এ কেনন ইনকাম হতে পারে?

আপনি যত বেশি Windows VPS Server সেটাপ করতে পারবেন আপনি তোতো বেশি ইনকাম করতে পারনে। ধরে রাখুন যদি একটা VPS Server থেকে যদি ডেইলি ১৫ সেন্ট ইনকাম হয় তবে ১০০ VPS Server থেকে আপনার অনায়াসে ১৫ ডলার ইনকাম হবে। যেহেতু আপনি আনলিমিটেড কার্ড তৈরী করতে পারবেন সেহেতু আপনি অনায়াসে আনলিমিটেড ভিপিএস সার্ভার চালু করতে পারবেন। আর বলে রাখা ভাল যে আপনি একটা ভিপিএস সার্ভার মাত্র ৩ মিনিটেই খুলে চালু করতে পারবেন।

টাকা পাবার সম্ভাবনা কতটুকু?

আমরা জানি যে, বিটকয়েন মাইনিং করতে বিভিন্ন মাইনিং পুলের সাথে জয়েন করে বিটকয়েন মাইনিং করতে হয়। আমরা এ ক্ষেত্রে ইউন মাইনার ( WinMiner) ব্যাবহার করব। ইউন মাইনার একটি ট্রাস্টেড পুল যারা আপনার টাকা কখনই মেরে খাবে না। ইউন মাইনার এর সবচেয়ে ভাল দিক হলো আপনি যত ইনকাম করবেন তা ইন্সটেন্ট আপনার একাউন্টে পাঠিয়ে দেবে আর সেটা যদি ১ সেন্ট ও যদি হয়।

আমি কখন এবং কিভাবে টাকা তুলতে পারি?

আপনি যখন আপনার মিনিমাম ট্রাসহোল্ড ক্রস করবেন আপনি সাথে সাথে আপনার ইনকামের টাকা তুলে আনতে পারবেন বেশ কয়েক টি পেমেন্ট মেথড দিয়ে যাদের মধ্যে পেপাল এবং বিটকয়েন উল্লেখ যোগ্য। আপনি যদি দিনে হাজার বার আপনার ট্রাসহোল্ড ক্রস করেন তাহলে হাজার বারই টাকা উথড্র করতে পারবেন। উল্লখিত শর্ট বর্ণনা আশা করি আপনারা বুঝতে পেরেছেন এবং ভাল লেগেছে। তারপর ও যদি বিস্তর জানতে নিন্মে দেওয়া ভিডিও তে দেখতে পারেন।

আশা করি সব শেষে বিটকয়েন মাইনিং ট্রিক্স ক্রয় করাটা আপনার কাছে আবশ্যক মনে হয়েছে। তাহলে আর দেরি না করে মাত্র ১৫,০০০/- (পনেরো হাজার) ক্রয় করতে এখুনি যোগোযোগ করুন এখানে। শর্ত প্রযজ্য, নীতিমালা পড়ুন এখানে ।

ধন্যবাদ
অনলাইন এডুকেশন এইড বাংলা (OEAB) -এর সাথেই থাকুন

 Lowest prices for domains at Namecheap.